Home জেলার খবর নিয়ামতপুর নিয়ামতপুরে আগুনে পুড়ল যমুনা ইলেকট্রনিক্সসহ৪টি দোকান, ক্ষতির পরিমান অর্ধকোটি টাকা

নিয়ামতপুরে আগুনে পুড়ল যমুনা ইলেকট্রনিক্সসহ
৪টি দোকান, ক্ষতির পরিমান অর্ধকোটি টাকা

602
0

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি
নিয়ামতপুরে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে যমুনা ইলেকট্রনিক্সসহ চারটি দোকান ঘর ভষ্মিভ’ত হয়েছে। বুধবার দিবাগত মধ্য রাতে উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের খড়িবাড়ি বাজারে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে প্রথমে নিয়ামতপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ও পরে পার্শ্ববর্তী চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলার নাচোল ও রাজশাহী জেলার তানোর উপজেলার ফায়ার সার্ভিস ইউনিট ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে ক্ষতির পরিমান প্রায় অর্ধকোটি টাকা বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ দোকান মালিকরা। তবে কি কারনে এ ঘটনা ঘটল তা কেউ বলতে পারেনি। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ইলেকট্রিক সর্টসার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত হতে পারে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাই, প্রতিদিনের মত যে যার মত দোকান বন্ধ করে বাড়ী চলে যায়। বাজারের নাইটগার্ডরা প্রথমে যমুনা ইলেকট্রনিস্ক ঘরে আগুন দেখতে পায়। তাদের চেঁচামেচিতে ছুটে আসে স্থানীয়রা। ক্ষনিকের মধ্যেই আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে। এসময় পার্শ্ববর্তী সোহাগী কনফেকসনারী, রিতা টেলিকম ও দুইবোন হোটেল এ্যান্ড রেস্টুরেন্টের ঘরে দাউ দাউ করে জ্বলে থাকে আগুন। সংবাদ পেয়ে ছুটে আসেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ততোক্ষনে চারটি দোকান পুড়ে ভষ্মিভ’ত হয়ে যায়।
নিয়ামতপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) আরশেদ আলী জানান, রাত ১২ টা ৫০ মিনিটে সংবাদ পেয়ে তিনি খড়িবাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে সড়ক খারাপ থাকায় বালাতৈড় কলেজের নিকট তাদের গাড়িটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে উল্টে সড়কে পার্শবর্তী গর্তে পড়ে যায়। এত তার ইউনিটের সকল সদস্যই আহত হয়। এমত অবস্থা তিনি পার্শ্ববর্তী নাচোল উপজেলার ফায়ার সার্ভিস ও তানোরকে সংবাদ দেন। পরবর্তীতে নাচোল ও তানোর ফায়ার সার্ভিস টিম এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।
যমুনা ইলেকট্রনিস্কের মালিক আশরাফুল ইসলাম জানান, এ অগ্নি কান্ডে তার দোকানের ইলেকট্রনিক্সের (টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, রাইসকুকার, মাইক্রো ওভেন) সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে তার ক্ষতির পরিমান প্রায় ত্রিশ লক্ষাধিক টাকা। সোহাগী কনফেকসনারীর মালিক কামাল হোসেন, রিতা টেলিকমের মালিক ওসমান গনি ও হোটেল মালিক গোলাম মর্তুজা জানানর তাদের ক্ষতির পরিমানও প্রায় পনের লক্ষাধিক টাকা।
এ ঘটনায় জানতে চাইলে ওসি হুমায়ন কবীর জানান, অগ্নিকান্ডের ঘটনা তিনি শুনেছেন কিন্তু এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ আসলে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here